প্রিয়মুখ

আবৃত্তিকে পেশা হিসেবে নিয়ে সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন সৌমিত্র ঘোষ

আবৃত্তিশিল্পী: সৌমিত্র ঘোষ

কলকাতার স্বনামধন্য আবৃত্তিশিল্পী সৌমিত্র ঘোষ।

একসময়ে আবৃত্তির অবস্থা এমন ছিল যে, স্কুলে, পাড়ার পূজোয় বা ক্লাবের কোন অনুষ্ঠান হলে বাবা-মায়েরা সন্তানদেরকে বলতেন যখন কিছুই পারিস না, তখন তুই একটা কবিতা আবৃত্তি করিস। ঠিক তখন থেকেই সৌমিত্র ঘোষ কবিতাকে ভালোবেসে আবৃত্তিকে লালন করেছেন নিজের অনুভূতিতে। এবং এখনও ভালোবাসেন অন্যান্য সবকিছুর চাইতে একটু বেশি। বলা যেতে পারে কবিতা ও আবৃত্তি তার ভাবনায় মিশে আছে। আর কোন কিছু ভাবনায় মিশে গেলে তা বোধকরি নিজেরই অংশ হয়ে যায়। এর স্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া যায় তাঁর কথায়।

সৌমিত্র ঘোষ বলেন, সংসার আর কবিতাকে আলাদা করতে পারি না। নিজের পরিবারকে যেমন করে ভালোবাসি, কবিতাকেও ঠিক তেমন করে ভালোবাসি। আমার সন্তানকে যেমন করে লালন-পালন করি, আদর করি, আবৃত্তিকেও সমানভাবে নিজের হৃদয়ে রাখি। তিনি বিনয়ের সাথে আরও বলেন, সত্যি বলতে কি আমি এখনও শিখছি। আমার বাড়ির একটি কামরা আবৃত্তির আরাধনার জন্য রেখেছি। সেখানে আমি রোজ আবৃত্তি চর্চা করি।

সময়ের সাথে সাথে আবৃত্তির ভাবনা থেকে বেরিয়ে বাবা-মায়েরা এখন স্কুল-কলেজের কারিকুলামের বাইরেও তাদের সন্তানদের এক্সট্রা কিছু করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছেন। সেক্ষেত্রে অভিনয়, নাচ, গানের পাশাপাশি আবৃত্তিও সমানভাবে গুরুত্ব পাচ্ছে। এই পরিবর্তনে কিন্তু সৌমিত্র ঘোষ এবং তার সমসাময়িক আবৃত্তি শিল্পীদের ভূমিকা কোনভাবেই অস্বীকার করা যায় না। আজ যে চারিদিকে আবৃত্তির জয়জয়কার এর সূচনা কিন্তু তাঁর বা তাঁদের হাত ধরেই। যদি তাঁরা আবৃত্তিকে পেশা হিসেবে নেয়ার মত সাহসিকতা না দেখাতেন তাহলে হয়ত মানুষের বোধ পরিবর্তন হত না এবং আবৃত্তিশিল্প এতটা অগ্রসর হত না। সৌমিত্র ঘোষ বিশ্বাস করেন সময় যাবে, এই ভাবনার আরও ইতিবাচক পরিবর্তন হবে। আবৃত্তির প্রতি সকলের ভালোবাসা বাড়বে, মানুষ আরও সম্পৃক্ত হবে। এবং আবৃত্তি আরও উঁচূ স্তরে জায়গা করে নিবে।

বাংলাদেশের যশোরের বিপরীতে ইচ্ছামতি নদীর পাড়ের টাকিতে জন্ম নেয়া প্রকৃতিপ্রেমী সৌমিত্র ঘোষের আবৃত্তি জীবনের পথচলা শুরু হয়েছিল স্কুলজীবনে। তখন তিনি প্রথম কিংবা দ্বিতীয় শ্রেণীতে পড়তেন। স্কুলের বাৎসরিক অনুষ্ঠানে আবৃত্তি করেছিলেন। সেই থেকে আজ পর্যন্ত কবিতাকে সাথে নিয়েই চলছেন। নিজস্বতা, ঐকান্তিক একাগ্রতা এবং সৎ চেষ্টায় জায়গা করে নিয়েছেন আবৃত্তির আঙিনায়। পৌঁছে গিয়েছেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে।

অত্যন্ত সদালাপী, মিষ্টিভাষী এবং ভীষণই বন্ধুবাৎসল কবিতাপ্রেমী এই মানুষটি সম্প্রতি দু’দিনের ঢাকা সফরে তিনটি আবৃত্তি অনুষ্ঠানে ছড়িয়ে দিয়েছেন তার কন্ঠের যাদু, রেখে গেছেন অপার মুগ্ধতা। আবৃত্তিশিল্পী সৌমিত্র ঘোষের নাম এখানকার সকল কবি ও আবৃত্তিপ্রেমীদের মুখে মুখে।

সৌমিত্র ঘোষের সাফল্যের এই ধারা অব্যাহত থাক। জয়ের ফুলে ভরে উঠুক তার জীবনের সবুজ উদ্যান।

লেখকঃ তাহমিনা শিল্পী
কবি ও গল্পকার, ঢাকা, বাংলাদেশ।

Add Comment

Click here to post a comment

ফেসবুক পেজ

আর্কাইভ

ক্যালেন্ডার

ডিসেম্বর ২০১৯
সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
« নভেম্বর    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১