রঙঢঙ

কৌশলে জয় করুন হবু শাশুড়ির মন

হ্যালোডেস্ক

যতোই আধুনিক হয়ে যান না কেন সকলেই, একেবারে প্রথমে ছেলের পছন্দ করা মেয়েকে ঘরের বউ করতে নারাজ থাকেন অনেক মায়েরাই।

প্রায় সকল মায়ের মনের ইচ্ছা থাকে তার ছেলের জন্য পছন্দমতো বউ নিজে খুঁজে আনার। এবং যার কারনে ছেলে যতো ভালো মেয়েই পছন্দ করুক না কেন এক ধরণের গোঁ ধরে বসে থাকেন তারা। আর এর পুরো প্রভাব ও চাপ পড়ে মেয়ে এবং ছেলেটির উপর। অনেক সময় ছেলেটি নিজের মতামত প্রকাশ করতে না পারার কারনে সম্পর্কটিই ভেঙে যেতে দেখা যায়। কিন্তু একটু কৌশলী হতে জানলে মেয়েরাই প্রথম দেখাতেই তার হবু শাশুড়ির মন জয় করে নিতে পারেন। কৌশলগুলো জেনে নেয়া যাক…

১. কথায় বলে ‘ফার্স্ট ইমপ্রেশন ইজ দ্য লাস্ট ইমপ্রেশন’, তাই প্রথম দিনই এমন কিছুই করবেন না যাতে হবু শাশুড়ি আপনাকে অনেক বেশি চতুর এবং চালাক গোছের মেয়ে ভেবে বসেন। শাশুড়িরা বেশিরভাগ সময়েই চান ছেলের বউয়েরা একটু কম বুদ্ধির হোক বা বোকা ধরণের হোক। তাই যদি আপনি চালাকও হয়ে থাকেন তাও চেহারায় বোকা ভাব ফুটিয়ে রাখতে পারেন। তবে সত্যি বলতে কি নিজেকে লুকোনোর কিছুই নেই। যার আপনাকে পছন্দ করার কথা তিনি এমনিতেই পছন্দ করে নেবেন। তারপরও অনেক ক্ষেত্রে এই বুদ্ধি কাজে লাগানো যায়।

২. আপনি সর্বগুণে গুণান্বিত এবং সকল কাজে পটু হিসেবে নিজেকে প্রথমেই উপস্থাপন করে ফেলবেন না। এতে করে হবু শাশুড়িরা ভাবেন এই মেয়েকে সংসারে নিলে প্রথমেই সংসারে নিজের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করতে চাইবে। আর তখনই অনেকে নিজের আধিপত্য কমে যাওয়ার ভয়ে বেঁকে বসেন। তাই নিজেকে উপস্থাপন করুন কিন্তু ধিরে ধিরে।

৩. প্রথম দেখাতেই হবু শাশুড়ির সামনে নিজের হবু স্বামী অর্থাৎ প্রেমিকের প্রতি অতিরিক্ত ভালোবাসা দেখাতে যাবেন না। আপনি হয়তো ভাবছেন আপনি তার প্রতি ভালোবাসা দেখাতে শাশুড়ি ভাববেন মেয়েটি ভালো, তার ছেলেকে সুখে রাখবে। আসলে কিন্তু তা নয়, যার মানসিকতা একটু ভিন্ন ধরণের তিনি প্রথমেই আপনাকে রিজেক্ট করে দেবেন ছেলে পর হয়ে যাওয়ার ভয়ে। তাই একটু কৌশলী হোন।

৪. নিজের পরিবারের কোনো গোপন কথা একেবারেই বলবেন না প্রথম দেখাতে। আপনি সরল মনে বলে দিচ্ছেন এবং ভাবছেন তার বিশ্বাস অর্জন করতে পারবেন? বিষয়টি ভুল। বরং আপনার হবু শাশুড়ি ভাববেন আপনি সবাইকে কথা লাগানো এবং পেটে কথা রাখতে না পারা ধরণের মেয়ে। তাই ভুলেও এই কাজটি করবেন না।

৫. আপনার কোন ধরণের পরিবার পছন্দ, ছোটো পরিবার ভালো কি মন্দ এই ধরণের আলাপ প্রথম দিনে একেবারেই করতে যাবেন না। আবার জয়েন্ট ফ্যামিলি নিয়েও বেশি কথা বলবেন না। এ সবই পরের ব্যাপার। আগে থেকে ছোটো পরিবারের কথা বলা শুরু করলে প্রথমেই শাশুড়ির চোখের বিষ হয়ে যাবেন। তাই মিষ্টি হাসি উপহার দিন এই ব্যাপারে প্রশ্ন এলে।

ফেসবুক পেজ

আর্কাইভ

ক্যালেন্ডার

December 2020
M T W T F S S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031