তরঙ্গটুডে

গিটারের জাদুকর আইয়ুব বাচ্চুকে হারানোর দিন আজ

হ্যালোডেস্ক

কয়েকটি প্রজন্মকে গানের বন্ধনে আবদ্ধ করে রেখেছিলেন আইয়ুব বাচ্চু। সেই ক্যাসেট- ফিতার কাল পেরিয়ে স্মার্টফোন-ল্যাপটপের যুগে এসেও তাঁর গানের আবেদন কমেনি এতটুকুও। বইয়ের ফাঁকে তাঁর ভিউকার্ড জমানোর সেই উম্মাদনা কখনো কি ভোলা সম্ভব? বাঙালির চিঠি লেখার অভ্যেস ফুরিয়ে যাওয়ার পরেও তাঁর জনপ্রিয়তায় ভাটা পড়েনি এতটুকুও।

রুপালি গিটারের মালিক হারিয়ে গেছেন মাত্র ৫৬ বছর বয়সে। ২০১৮ সালের ১৮ অক্টোবর সকালে সবাইকে কাঁদিয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নেন তিনি। দেখতে দেখতেই বছর পেরিয়ে গেল। আজ আইয়ুব বাচ্চুকে হারিয়ে ফেলার সেই দিন।

১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট চট্টগ্রাম নগরীর এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম নন্দিত ব্যান্ড তারকা ও গিটার লিজেন্ড আইয়ুব বাচ্চুর। মৃত্যুর পর চট্টগ্রামেই তাকে চিরশায়িত করা হয়েছে।

ছোটবেলা থেকেই গিটারের প্রেমে পড়েন তিনি। কলেজ জীবনে বন্ধুদের নিয়ে ‘গোল্ডেন বয়েজ’ নামে একটা ব্যান্ডদল গড়ে তোলেন আইয়ুব বাচ্চু, পরে এর নাম পাল্টে রাখা হয় ‘আগলি বয়েজ’। বিয়েবাড়ি, জন্মদিন আর ছোটখাটো নানা অনুষ্ঠানে তাদের এই ব্যান্ডদল গান করত।

আইয়ুব বাচ্চুর বন্ধুরা যে যার মতো একেক দিকে ছড়িয়ে পড়লেও আইয়ুব বাচ্চু ব্যান্ডদল ‘ফিলিংস’র সঙ্গে যুক্ত হয়ে যান। এরপর ১৯৮০ সালে তিনি যোগ দেন ‘সোলস’ ব্যান্ডে। এই ব্যান্ডের লিডগিটার বাজানোর দায়িত্বে ছিলেন টানা ১০ বছর। ১৯৯১ সালের ৫ এপ্রিল গড়ে তোলেন নতুন ব্যান্ড ‘এলআরবি’। সঙ্গীতের আঙিনায় আইয়ুব বাচ্চু একাধারে গীতিকার, সুরকার, পরিচালক এবং গায়ক হিসেবে জনপ্রিয়।

আজ এই কিংবদন্তি গায়কের চলে যাওয়ার এক বছর। বাংলা ব্যান্ড সংগীতের এক উজ্জ্বল নক্ষত্র ছিলেন আইয়ুব বাচ্চু। এলআরবি ব্যান্ড দলের লিড গিটারিস্ট এবং ভোকাল আইয়ুব বাচ্চু বাংলাদেশের ব্যান্ড জগতের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও সম্মানিত ব্যক্তিত্বদের একজন।

১৯৮৬ সালে প্রথম রক্তগোলাপ নামে একক অ্যালবাম প্রকাশ করেন এই সঙ্গীত শিল্পী। অ্যালবামটি তেমন সাফল্য না পেলেও ১৯৮৮ সালে তার দ্বিতীয় একক অ্যালবাম ‘ময়না’ দিয়ে সফলতার শুরু হয়। ১৯৯১ সালে গঠন করেন এল আর বি ব্যান্ড।ব্যান্ড গঠনের পর ১৯৯২ সালে ব্যান্ডের নামেই প্রথম অ্যালবাম প্রকাশ করেন।

এই অ্যালবামের ‘শেষ চিঠি কেন এমন চিঠি’, ‘ঘুম ভাঙা শহরে’, ‘হকার’ গানগুলো ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। পরে ১৯৯৩ ও ১৯৯৪ সালে তার দ্বিতীয় ও তৃতীয় ব্যান্ড অ্যালবাম ‘সুখ’ ও ‘তবুও’ বের হয়। সুখ অ্যালবামের ‘সুখ’, ‘চলো বদলে যাই’, ‘রুপালি গিটার’, ‘গতকাল রাতে’ উল্লেখযোগ্য গান।

এর মাঝে ‘চলো বদলে যাই’ বাংলাদেশের সঙ্গীত জগতে অন্যতম জনপ্রিয় একটি গান। গানটির কথা ও সুর করেছেন বাচ্চু নিজেই। ১৯৯৫ সালে বের করেন তৃতীয় একক অ্যালবাম কষ্ট। এটি সর্বকালের সেরা একক অ্যালবাম বলে অবিহিত করা হয়। অ্যালবামটির প্রায় সবগুলো গানই জনপ্রিয়তা পায়। বিশেষ করে ‘কষ্ট কাকে বলে, ‘কষ্ট পেতে ভালোবাসি’, ‘অবাক হৃদয়’, ও ‘আমিও মানুষ’।

আজ তার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী। তার প্রিয়জনেরা নানা আয়োজনে স্মরণ করছেন তাকে। শুক্রবার বাদ আসর ঢাকা মগবাজার মসজিদে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করছে তার পরিবার। এছাড়া চট্টগ্রাম নগরীর আইয়ুব বাচ্চুর কবর জিয়ারত করবেন তার প্রিয়জনেরা। সাথে দোয়ার মাহফিলের আয়োজন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আইয়ুব বাচ্চুর স্ত্রী চন্দনা।

পরিবারের আয়োজন ছাড়াও তার শুভাকাঙ্ক্ষী ও ভক্তরাও বিভিন্ন স্থানে দোয়ার আয়োজন করেছেন। চ্যানেল আই, নাগরিক টেলিভিশনসহ কয়েকটি টিভি চ্যানেলও আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করবে।

ফেসবুক পেজ

আর্কাইভ

ক্যালেন্ডার

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930