তরঙ্গটুডে

তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরের চলে যাওয়ার ১০ বছর

তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীর

হ্যালোডেস্ক
১৩ আগস্ট ২০২১


২০১১ সালের আজকের দিনে (১৩ আগস্ট) ‘কাগজের ফুল’ সিনেমার শুটিং স্পট দেখে মানিকগঞ্জের শালজানা থেকে ঢাকা ফিরছিলেন নির্মাতা তারেক মাসুদ। সঙ্গী ছিলেন স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ, মিশুক মুনীর, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিল্পী ঢালী আল মামুন ও তার স্ত্রী দেলোয়ারা বেগম জলি। এছাড়া ছিলেন প্রডাকশন সহকারী ওয়াসিম, জামাল। আর তাদের গাড়িটি চালাচ্ছিলেন চালক মুস্তাফিজুর রহমান।

ফেরার পথে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের জোকা এলাকায় যখন তাদের গাড়িটি পৌঁছায় তখন ঝুম বৃষ্টি হচ্ছিলো। হয়তো সেটা ছিল বিদায়ের আগের কান্না। এসময় চুয়াডাঙ্গাগামী ডিলাক্স পরিবহনের একটি দ্রুতগতির বাসের সঙ্গে মাইক্রোবাসটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে তারেক মাসুদ, মিশুক মুনীর, প্রডাকশন সহকারী ওয়াসিম, জামাল ও চালক মুস্তাফিজুর রহমান নিহত হন। আহত হন তারেকের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ, ঢালী আল মামুন ও তার স্ত্রী দেলোয়ারা বেগম জলি।

এ ঘটনার পর পেরিয়ে গেছে ১০ বছর। দুর্ঘটনাস্থলের পাশেই স্থানীয় উদ্যোগে নির্মিত হয়েছে স্মৃতিফলক। ২০১১ সালের পর থেকে প্রতিবছর ওই স্মৃতিফলকে স্থানীয় বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন, গণমাধ্যমকর্মীসহ বিশিষ্টজনরা নিহতদের স্মরণ করছেন।

এ ধারাবাহিকতায় আজ বেলা ১১টায় দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়েছে। মানববন্ধন-আলোচনাসভায় নিরাপদ সড়কের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। এছাড়া বৃক্ষরোপণ কর্মসূচিও পালন করা হচ্ছে।

মানিকগঞ্জ প্রেসক্লাব, ঢাকা-মানিকগঞ্জ-পাটুরিয়া রেল লাইন বাস্তবায়ন আন্দোলন কমিটি, বারসিক ও তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীর স্মৃতি পরিষদ তাদের দশম মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মৃতিচারণ, বৃক্ষরোপণ ও মাস্ক বিতরণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

এ বিষয়ে মানিকগঞ্জ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী গাউসুল হাসান মারুফ বলেন, ২০১১ সালের ওই মর্মান্তিক দুর্ঘটনার পর দুর্ঘটনা কবলিত স্থানে রাস্তা প্রশস্তকরণ ও ডিভাইডার নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া ওই স্থানসহ বেশ কয়েকটি স্থান ব্ল্যাকস্পট ঘোষণা করে রাস্তা প্রশস্তকরণ ও ডিভাইডার নির্মাণ সম্পন্ন করা হয়েছে। অপর দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক ইতোমধ্যে ফোর লেন কাজ দ্রুত গতিতে চলছে। এই সড়কটি ফোর লেন হলে দুর্ঘটনা অনেকাংশে কমে যাবে বলে জানান তিনি।

ফেসবুক পেজ

আর্কাইভ

ক্যালেন্ডার

July 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031