রন্ধনশৈলী

‘দই’ এর উপকারিতা

-ফারজানা রহমান তাজিন

“ব্যাকটেরিয়া” নাম শুনলেই খারাপ কিছু মনে হয় কিন্তু অবাক করা ব্যাপার হলো কিছু ব্যাকটেরিয়া আছে যেগুলো আমাদের সুস্থ জীবনের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ! ঠিক জায়গায় এবং ঠিক পরিমাণে থাকলে এসব ব্যাকটেরিয়া আমাদের কোনও ক্ষতি করেই না বরং উপকার করে। বিশেষ করে আমাদের পেটের ব্যাকটেরিয়া। অ্যান্টিবায়োটিকের মতো কড়া কোনও ওষুধ খাওয়া শুরু হয় তখন শরীরের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার পাশাপাশি এসব উপকারী ব্যাকটেরিয়াও মারা যায়। ফলে শরীরের স্বাভাবিক ব্যাকটেরিয়ার ভারসাম্ম নষ্ট হয়।

এ অবস্থায় কি করতে পারেন? এসব ব্যাকটেরিয়া খেতে পারেন, অবাক হলেও এ ধরণের ব্যাকটেরিয়া ভর্তি একটা খাবার আছে যেটা আপনি হয়তো বেশ শখ করেই খাচ্ছেন! সেই খাবারটা আর কিছুই নয়, দই! প্রোবায়োটিকস” নামে পরিচিত এই জীবাণুগুলো ক্যান্সার প্রতিরোধ করে, প্রদাহ কমায় এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

Journal of the American Medical Association এ প্রকাশিত ৮২ টি গবেষণার তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, কড়া অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার ফলে যে ডায়রিয়া হয়, ওষুধ ছাড়াই তার ৪২ শতাংশ কমিয়ে আনতে পারে প্রোবায়োটিকস। আরেকটি গবেষণায় দেখা যায়, গর্ভাবস্থায় কোষ্ঠকাঠিন্যের মাত্রা কমিয়ে আনতেও এটি কার্যকর। আর পেটের কার্যক্ষমতা দ্বিগুণেরও বেশি বাড়িয়ে দেয় এসব উপকারী ব্যাকটেরিয়া।

প্রতিদিন খাদ্যের সাথে দই গ্রহণ করলে রক্তের কোলেস্টেরলবাহী অণুর পরিমাণ কমে আসে। ২০১২ সালের একটি গবেষণায় দেখা যায়, যেসব ব্যক্তি দিনে দুই বার খাদ্যের সাথে প্রোবায়োটিকস গ্রহণ করেছেন তাদের রক্তে ক্ষতিকর কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে আসে ১১.৬ শতাংশ। এখানে গবেষকরা ধারণা করেন, এসব প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া পিত্তরসে উপস্থিত লবণগুলোকে ভেঙ্গে এমন অবস্থায় নিয়ে যায় যে সেগুলো পেটে কোলেস্টেরল শোষণের মাত্রা কমিয়ে দেয়। এসব ব্যাকটেরিয়া পেটের চর্বি কমাতে পারে।

একটি বছরের অর্ধেক সময়টাই যদি সর্দিকাশি আর ভাইরাস জ্বরে ভুগতে থাকেন, তাহলে আপনার সময় হয়েছে প্রোবায়োটিক খাবার। প্রোবায়টিক এর উপকারিতা পেতে সেই ব্যাকটেরিয়ার খাবার টি খেতে পারেন আর তা হলো দই।

ফেসবুক পেজ

আর্কাইভ

ক্যালেন্ডার

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930