হ্যালো প্রবাস

ফরাসি দেশে গুরুপূর্ণিমা এবং পার্বতী বাউল

 

-রবিশঙ্কর মৈত্রী

গত রবিবার ছিল ফ্রান্সের জাতীয় দিবস। এই দিবসকে আমরা বাস্তি(ল) দিবস বলেও জানি। আলেসে বরাবরের মতো কাল সন্ধ্যায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শেষে লো গারদোঁ নদের তীরে অনুষ্ঠিত হয় আলোকমালা গাঁথার উৎসব। আকাশে গতরাতে কতো বিচিত্র আলোর মালা ফুটেছিল, নদের জলে তার প্রতিবিম্ব খেলা করছিল। তবে মাঝে মাঝেই আমার চোখজুড়ে ছিল পূর্ব-দক্ষিণ আকাশের পূর্ণপ্রায় দ্বাদশীর একলাজ্বলা মায়াবী চাঁদ। বুঝতে পারছিলাম, ওই চাঁদ পূর্ণিমাঘন হতে আর বেশি দেরি নেই। আগামীকাল গুরুপূর্ণিমা। সাধারণত আষাঢ় মাসেই গুরুপূর্ণিমা হয়।

তিথি নক্ষত্রের হিসেবে কোনও কোনও বছরে শ্রাবণেও হতে পারে এই পুণ্য পূর্ণিমা। সংস্কৃত গু এবং রু ধাতু দিয়ে তৈরি গুরু। গু মানে অন্ধকার বা অজ্ঞতা, রু অর্থ আলো। যিনি অন্ধকার থেকে আলোর পথে নিয়ে যান তিনিই তো গুরু। আমাদের এই জীবন-জগৎ যখন নিম্নমেধায় ভরে গিয়েছিল তখন এক আষাঢ় মাসের পূর্ণিমা তিথিতে মহাভারত প্রণেতা এবং বেদ-বিভাগ-কর্তা মহর্ষি কৃষ্ণদ্বৈপায়ন ব্যাসদেব জন্মগ্রহণ করেন মুনি পরাশর ও মাতা সত্যবতীর গৃহে। আদিগুরু হিসেবে তাঁর জন্মতিথিকে কেন্দ্র করে এই গুরুপূর্ণিমা দিনে দিনে প্রসারিত হয়। অবশ্য এই মিথ নিয়ে মতান্তরও আছে। অন্য মতে বলা হয়, ভগবান শিব এই তিথিতে সপ্তর্ষিকে জ্ঞানদান করেন, সেই থেকেই কালক্রমে গুরু প্রথার সৃষ্টি হয়৷ তবে এই মত আরও অনেকের সঙ্গে আমিও মানতে নারাজ। আমি কোনওদিন কল্পনাও করতে পারিনি, আমাদের প্রবাসনগর আলেস থেকে কিছুদূরে নিভৃত এক নিসর্গগ্রামে আগামীকাল গুরুপূর্ণিমা পালিত হবে।

আজ আরও বিস্ময়াভূত হচ্ছি এই জেনে যে, কাল এখানে গুরুপূর্ণিমা পালিত হবে পার্বতী বাউলকে ঘিরে। কদিন হল, পার্বতী তাঁর মাধুকরী-পরিভ্রমণে এসেছেন ফ্রান্সের অক্সিতানি রাজ্যে। ইয়োরোপ ভ্রমণের শেষ পর্বে তিনি প্যারিস লিয়োঁ এবং আর্দেশের পরে এখন আছেন আলেস-নিকটবর্তী এক আধ্যাত্মিক সাধনমার্গধন্য পুণ্য গ্রামে। পার্বতীশিষ্যা মাগদা জানালেন, কাল মঙ্গলবার সকাল দশটায় তাঁরা গুরুপূর্ণিমা পালন শুরু করবেন। আধ্যাত্মিক আলোর জগতে নিয়ে যাবেন গুরু মা সাধিকা পার্বতী দাস বাউল। আমিও সেই আলোকধ্যান ও জ্ঞানালোচনায় অংশগ্রহণ করব বলে মনস্থির করেছি।

উল্লেখযোগ্য আগামী ১৮ই জুলাই সেনতোম বোঁয়ার পাশেই পার্বতীর সংগীতানুষ্ঠান মাধুকরীও অনুষ্ঠিত হবে। আমরা জানি–বাংলাদেশের চট্টগ্রামে রাউজানের পশ্চিম গুজরার গ্রামের পারিয়ালপাড়ায় যে মৌসুমী পারিয়ালের পূর্বসূত্র রচিত হয়েছিল, দেশভাগের দশা-দুর্দশায় সেই মৌসুমীই আজ সকল দেশকালের ঊর্ধ্বগামী আমাদের প্রিয় বাউলাশ্রয় আমাদের পরম ভালোবাসার শিল্পী এবং সাধিকা পার্বতী বাউল। আমার বিশ্বাসে আজ নতুন ঢেউ উঠেছে। গুরুপূর্ণিমা উপলক্ষে আজ মনের মধ্যে নতুন জোয়ার এসেছে। পার্বতীকে দেশে-বিদেশে এখন কতো জনে মা বলে সম্বোধন করছেন। পার্বতীশিষ্যা মাগদা আজ তাঁর গুরুকে স্পষ্টত Maa বলেই উল্লেখ করেছেন। রোমে আমস্টারদামে প্যারিসে কোপেনহেগেন সহ যেখানেই পার্বত স্থান নিচ্ছেন সেখানেই তিনি মা বলে সম্বোধিত হচ্ছেন। বস্তু বাস্তু এবং ভোগত্যাগী কিছু মানুষ পার্বতীর পথ ধরে জীবনের এক শুদ্ধ অর্থ খুঁজে পেয়েছেন।

আমার মধ্যে প্রবাসবাসের যে দুঃখ ও নির্বাসনবেদনা ছিল, সেই গভীরতর বেদনামগ্ন অবস্থা আজ লঘু হয়ে গেছে। আমি পরিষ্কার দেখতে পাচ্ছি, বুঝতে পাচ্ছি—চট্টগ্রাম শান্তিনিকেতন বারাসাত তথা পশ্চিমবঙ্গ কেরালা এবং সমগ্র ইয়োরোপ আজ সকল ভৌগোলিক ভেদরেখা মুছে গেছে। বাংলা ফরাসি এবং ইংরেজি ভাষা মিলেমিশে আজ এক পরমবোধের সম্মিলনে সকল ভাষার দূরত্ব ঘুচিয়ে দিয়েছে। আর এসবই সম্ভব হয়েছে পার্বতীর মানুষগুরু ভজনার মাধ্যমে। আমরা মহাগুরু লালন সাঁইজি, বাউল শাহ্ আবদুল করিম আর পরমগুরু সনাতন দাসকে একসুরে এক মনোবিতানে পেয়েছি পার্বতীর অপার্থিব কণ্ঠমাধুরীতে। তাঁর মাধুকরী আমাদের সকল অহংকার চোখের জলে ডুবিয়ে দিয়েছে। পার্বতী সেভেন পাহাড়ের মাটি জল আলো স্পর্শ করেছে, আমিও তাঁর অনুগামী হবার প্রেরণালাভ করেছি। অভিবাদন পার্বতী বাউল। আপনাকে গুরুপ্রণাম।

ফেসবুক পেজ

আর্কাইভ

ক্যালেন্ডার

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930