কবিতা

মেয়েটার রং

সাময়িকী: শুক্র ও শনিবার

-ভাগ্যধর বৈদ্য

মেয়েটার রং কালো ঘুটঘুটে ,
ভেতরে ভেতরে চাপা হিংসুটে।
ভূত- চোর- খুনি ছেড়ে দেয় রাতে ,
উপোস করায়, মারে অজুহাতে।

মাতালের ঘরে পাগলিনী সাজে
তবু তাকে কেউ বলছে না বাজে।
আকাশের তারা কাঁপে বুঝি ভয়ে ,
পূর্ণিমা- চাঁদ ধীরে ধীরে ক্ষয়ে।

তোমরা বলবে, মেয়েটাকে চিনি
গৃহস্থের মা বিপদতারিণী ,
বিপদে ডাকলে আসে ঠিক ছুটে।
ভক্ত জবারা পায়ে পড়ে লুটে।

আমি বলি , না । সে ডাকাতের রাণী ,
দস্যুরা তাকে খুশি করে জানি ।
তান্ত্রিক – ওঝা তাকে ভালোবাসে ,
তুকতাকে মেতে হাসে উল্লাসে ।

কালো রাতে মেয়ে খোলা গায়ে হাঁটে ,
মহাভুল করে শুধু জিভ কাটে।
মনে তার বিষ, মুখে আনে মধু ,
তাকে দেখে শেখে একালের বধূ।

আলো থাক। আর বোমাবাজি নারে ,
মেয়ে আগে যাক ভালো পার্লারে।
কেন মা করবে মন বিদঘুটে!
পাউডার ক্রিমে হও ফুটফুটে।

Add Comment

Click here to post a comment

ফেসবুক পেজ

আর্কাইভ

ক্যালেন্ডার

April 2024
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930