ঋতুর সাজ

শ্রাবণ ও ঋতু বদলের সাজ

মডেল: তানজিম প্রমা

হ্যালোডেস্ক

মধ্য জুন থেকে মধ্য আগস্ট আর বাংলা সনের আষাঢ় ও শ্রাবণ এ দুই মাস বর্ষাকাল। এখন শ্রাবণ মাস। এ মাসে বৃষ্টির কান্না নগরজুড়ে। বৃষ্টি মানেই শত দুঃখের হাতছানি। এত দুঃখ, এত ভোগান্তি, তবুও যেন শ্রাবণের বাদলা দিনের রূপ উপচে পড়ে। বৃষ্টিভেজা বর্ষার আবেদন যেন কোনোকালেই ফুরাবার নয়। শ্রাবণের বারিধারা যেন মন-শরীর নাচিয়ে তোলে প্রতি ক্ষণে।

তবে সাহিত্য রসে বর্ষারই আধিক্য। ঠিক প্রকৃতিপ্রেমীদের মননেও। শ্রাবণের বৃষ্টিবেলাতেই নিজেকে মেলে ধরার স্বাদ-আহ্লাদে অস্থির হয়ে ওঠে মন। প্রিয়জনের সনে মন মেলাতে ব্যাকুলতার শেষ থাকে না। বৃষ্টির সাজে মন সাজাতে আনচানের অন্ত থাকে না।

তাই তো বর্ষা বন্দনায় কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ লিখেছেন-
‘এমন দিনে তারে বলা যায়
এমন ঘনঘোর বরিষায়,
এমন মেঘস্বর বাদল-ঝরঝরে
তপনহীন ঘন তমসায়..’
কবির কবিতার ভাষার মতো বলতে গেলে বলতে হয়, শ্রাবণের ভারি বর্ষণে খুলে যায় মনের জানালা। ভাবজগৎ শিহরিত হয় বৃষ্টির ফোঁটায় ফোঁটায়। আন্দোলিত মনে কত কিছুই না ছুঁয়ে ছুঁয়ে যায়।

বর্ষায় ফ্যাশন
একটু ফ্যাশনেবল হতে চাইলে কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হয়। যেমন, আমরা যে দেশে থাকি সেটা বেশ গরমের দেশ৷ তাই ঋতুর কথা মাথায় রেখে পোশাক বাছতে হবে৷ যেমন, এখন হাল ফ্যাশনে লম্বা ড্রেস খুব চলছে৷ তাই বলে কি বর্ষাকালে মাটি ছোঁয়া লম্বা পোশাক পরা যায়? বৃষ্টি এলেই তো মাটিতে লুটিয়ে, কাদা মাখামাখি হয়ে সাজের দফারফা হবে। তাই লম্বা পোশাক কিনলেও সেটা যেন মাটি পর্যন্ত না ঝোলে৷ গরমের দিনে পরতে পারেন ন্যাচরাল ফ্যাব্রিকের পোশাক, তা হলে প্যাচপেচে ঘাম হবে না। জুতোর ব্যাপারেও বিশেষ যত্নশীল হতে পারেন৷ বর্ষাকালে যদি পা ঢাকা জুতো পরেন এবং সেটি ভিজে যায়, তা হলে চরম অস্বস্তি হবে৷ এমন জুতো কিনুন বৃষ্টিতে যেন কাদা ছিটে না ওঠে। এ সময় এমন জুতো পরুন যা স্লিপ করবে না। বর্ষায় যত্ন নিন হাত ও পায়ের, বিশেষ করে পায়ের। নখের চারপাশে যেন ময়লা না জমে থাকে। প্রতিদিন একটু সময় রাখুন নিজের জন্য দেখবেন নিজেকে খুব ভালো লাগবে। আর শরীর ভালো থাকলে মনও ভালো থাকবে।

বর্ষায় সাজ
অনেকেই বর্ষায় মেকাপ করতে চায় না। যখন তখন বৃষ্টি পরছে। খুব সেজেগুজে বাসা থেকে বের হলেন আর হঠাৎ বৃষ্টিতে সব ধুয়ে গেল। আর এজন্যই বর্ষায় মেকাপের ব্যাপারে একটু সচেতন থাকতে হবে। জেনে নিন কিভাবে বর্ষা কালেও পরিপাটি হয়ে বাইরে যাবেন আর সারাদিন সতেজ থাকবেন।

১। বর্ষায় সাধারণ ফেসওয়াশের বদলে একটু স্ক্রাবিং ফেসওয়াশ ব্যবহার করলে ভাল হয় কেননা এসময় সময় স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়ায় ত্বকে ধুলোময়লা বেশি জমে থাকে। মাঝে মাঝে ডিপ ক্লিঞ্জিং করে নেয়া ভাল।
২। বর্ষায় ওয়াটারপ্রুফ সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। মনে রাখবেন রোদ থাকুক আর নাই থাকুক সান্সক্রিন সারা বছর দরকার।
৩। খুব বেশি কভারেজ দেওয়া ফাউন্ডেশন বর্ষায় ব্যবহার না করাই ভাল। ফাউন্ডেশন, আইলাইনার, কাজল যা-ই ব্যবহার করবেন, সবই যেন ওয়াটারপ্রুফ হয়। তার চেয়ে ভাল কোনও বিবি ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।
৪। বর্ষার একটা বড় সুবিধা হচ্ছে এসময় যেকোনো রঙ মানিয়ে যায়। তাই কালারফুল আইশ্যাডো প্যালেটের এক্সপেরিমেন্ট করার সময় এটাই। উজ্জ্বল রঙেরে ড্রেস আর মেকাপ ব্যবহার করুন বর্ষায়।
৫। মুখের কোনও অংশের মেকআপ খারাপ হয়ে গেলে খুব কাজে দেবে মেকআপ রিমুভাল ওয়াইপস। তাই ব্যাগে রেখে দিবেন।
৬। লিপস্টিক ব্যাগে রাখুন সবসময়। ব্রান্ডগুলো যতই লংলাস্তিং দাবি করুকনা কেন বর্ষায় এটা সম্ভব না।

অবশ্যই ভাল কোয়ালিটি মেকাপ ব্যাবহার করুন । কারণ বর্ষায় ত্বক এমনিতেই ভিশন সেনসিটিভ হয়ে যায়। তাই নিজেকে ভালো রাখুন, সুন্দর থাকুন।

ফটোগ্রাফার: নাকিব বাপ্পী

ফেসবুক পেজ

আর্কাইভ

ক্যালেন্ডার

June 2024
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930